Business is booming.

ভাগাড়ের মাংস: সতর্ক করল কলকাতা-যাদবপুর

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: সম্প্রতি ভাগাড়ের মাংস রেস্তোরাঁর প্লেটে উঠে আসার খবরে আশঙ্কায় রয়েছেন সাধারণ মানুষ৷ এই আশঙ্কার জেরে মাংস নিয়ে এ বার সতর্ক করল কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় ও যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়।

শনিবার কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিটি হস্টেল পরিদর্শন করেন বোর্ড রেসিডেন্সের সেক্রেটারি। তিনি প্রতিটি হস্টেলের সুপারিনটেন্ডেন্ট এবং অ‍্যাসিস্ট্যান্ট সুপারিনটেন্ডেন্টকে সচেতন করে দিয়েছেন, কোনও পরিস্থিতিতেই যেন প্যাকেট বন্দি মাংস হস্টেলে নিয়ে আসা না হয়।

এই বিষয়ে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সোনালী চক্রবর্তী বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “কারমাইকেল হস্টেল ছাড়া আমাদের কোনও হস্টেলেই মাংস আসে না। আর বাজার থেকে যে রকমভাবে শাক-সবজি কিনে আনা হয়, সেই রকম ভাবেই জ্যান্ত মুরগিও কিনে আনা হয়। তার জন্য মেস কমিটি আছে। যে সব ছেলে এই কমিটি চালায়, তারাই জ্যান্ত মাছ, জ্যান্ত মুরগি কিনে নিয়ে আসে।” একই সঙ্গে তিনি বলেন, “আমি সুপারদের বলেছি যাতে কোনও জায়গা থেকেই ভেন্ডাররা আমাদের কিছু সাপ্লাই না করে সেই বিষয়টি যেন দেখা হয়৷’’

ভাগাড়ের মাংসের মতো বিষাক্ত মাংস যেন কোনও ভাবেই বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশ না করতে পারে, সে দিকে কড়া নজর দেওয়ার কথা বলেছে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সুরঞ্জন দাশ বলেন, “আমাদের অনেকগুলো ক্যান্টিন ও হস্টেল রয়েছে। আমরা নিশ্চিত করব যে এই বিষাক্ত মাংস যেন ভবিষ্যতে আমাদের ক্যাম্পাসে না ঢোকে। তার জন্য আমরা পরিকল্পনা করব।” আগামি তিন মে এগজিকিউটিভ কমিটির বৈঠকেও এই বিষয়ে আলোচনা হবে বলে তিনি জানিয়েছেন৷

©Kolkata24x7 এই নিউজ পোর্টাল থেকে প্রতিবেদন নকল করা দন্ডনীয় অপরাধ৷ প্রতিবেদন ‘নকল’ করা হলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে
—-

—-

Loading...
You might also like